ওয়েব সাইটে ভিজিটর বাড়ানোর সাতটি কার্যকরী টিপস

শেয়ার করুন আপনার সোশ্যাল মিডিয়াতে।


আপনার যত সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্ট আছে যেমন ফেসবুক টুইটার ইনস্টাগ্রাম পিন্টারেস্ট এই সমস্ত সোশ্যাল মিডিয়া গুলোতে আপনার নিজের প্রোফাইলে শেয়ার করুন।

অথবা আপনার ওয়েবসাইটের নামে এর সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে হচ্ছে আপনি একটি একাউন্ট করে নিতে পারেন সেই একাউন্টে প্রতিনিয়ত আপনার পোস্টগুলো শেয়ার করবেন এতে করে সোশ্যাল মিডিয়া থেকে প্রচুর পরিমাণে ভিজিটর আসবে আপনার ওয়েবসাইটে।

সোশ্যাল মিডিয়া গুলো প্রাইস সার্চ ইঞ্জিন এর মতই কাজ করে সার্চ ইঞ্জিন থেকে আপনি যেমন প্রচুর পরিমাণে ভিজিটর পেতে পারেন সোশ্যাল মিডিয়া গুলো থেকেও আপনি প্রচুর পরিমাণে ভিজিটর পেতে পারেন যদি আপনি সোশাল মিডিয়া গুলোতে পরিমাণ ফলোয়ার রাখতে পারেন।

সোশ্যাল মিডিয়া গুলোতে ফলোয়ার বাড়ানোর জন্য আপনার সোশ্যাল মিডিয়া পেজ বা একাউন্ট আপনার পেট প্রমোশন করতে পারেন বুস্ট করতে পারেন তাহলে আপনার প্রচুর পরিমাণে ফলোয়ার হবে এতে করে আপনার কিছু টাকা খরচ হবে এবং আপনি ফলোয়ার বৃদ্ধি করতে পারবেন এবং আপনার ওয়েবসাইটে প্রচুর পরিমাণে ভিজিটর নিয়ে আসতে পারবেন।

ভিজিটরদের ইমেইল করুন।


আপনি আপনার ওয়েবসাইটের ভিজিটর দের কে ই মেইল করতে পারেন অথবা ইমেইল মার্কেটার দের কাছ থেকে আপনি কিছু ই-মেইল কিনে নিতে পারেন আপনার টার্গেটেড লোকেদের তার মাধ্যমে আপনি আপনার ওয়েবসাইটে পোস্ট ইমেইলের মাধ্যমে তাদের কাছে পাঠিয়ে দিতে পারেন এতে করে প্রচুর পরিমাণে ভিজিটর আপনার ওয়েবসাইটে চলে আসবে।

ইমেইল মার্কেটিং এর মাধ্যমে সেই ভিজিটর গুলো আপনার ওয়েবসাইটে আসবে যারা আপনার ওয়েবসাইটে ইন্টারেস্ট।

ওয়েব সাইটে ভিজিটর বাড়ানোর জন্য ভিজিটরদের কাছে ই-মেইল পাঠানো একটি শক্তিশালী মাধ্যম ওয়েবসাইটে ভিজিটর বাড়ানোর ক্ষেত্রে আপনি চাইলে এটি ফলো করে দেখতে পারেন আমি আশা করি আপনার বয়ফ্রেন্ড প্রচুর পরিমাণে বিচিত্র নিয়ে আসতে পারবেন।

বিভিন্ন ধরনের সোশ্যাল মিডিয়া পোষ্টের নিচে কমেন্ট করুন তবে যেন স্পামিং না হয়

বিভিন্ন ধরনের সোশ্যাল মিডিয়ার বিভিন্ন গ্রুপে আপনার জয়েন করে থাকবেন এবং বিভিন্ন ধরনের পোস্ট করে থাকে মানুষ সোশ্যাল মিডিয়াতে এবং বিভিন্ন ধরনের সাহায্য চেয়ে থাকে আপনার পোস্ট রিলেটেড কেউ যদি সাহায্য চেয়ে থাকে তাহলে তারপর সে নিচে আপনার ওয়েব সাইটের লিংকটি আপনার কমেন্ট করতে পারেন এতে করে আপনার ইন্টারেস্টেড মানুষ গুলো আপনার ওয়েব সাইটে প্রবেশ করতে আগ্রহী হবে।

তবে সতর্ক থাকবেন যেন বেশি পরিমাণে শেয়ার না হয় যদি বেশি পরিমাণে শেয়ার হয়ে যায় তাহলে আবার সোশ্যাল মিডিয়া গুলো স্প্যাম হিসেবে ধরবে এবং আপনার একাউন্টে তারা সাসপেন্ড করে দিতে পারেন।

বর্তমানে ফেসবুকে ওয়েবসাইটের লিঙ্ক অতিরিক্ত শেয়ার করলে স্পামিং করলে ওয়েবসাইটটি তারা ব্লক করে দেয় তাই আপনার সতর্কতার সাথে ফেসবুকে অথবা টুইটারে পিন্টারেস্টে শেয়ার করবেন যেন প্রতিদিন 5 টার বেশি লিংক শেয়ার না হয় এরকম ভাবে বিভিন্ন পোষ্টের নিচে কমেন্ট করতে পারেন।

আপনার সাবস্ক্রাইবারদের কে ইমেইল পাঠান।

আপনি আপনার ওয়েবসাইটের সাবস্ক্রিপশন চালু করতে পারেন এতে করে বিভিন্ন ধরনের ভিজিটর আপনার ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে পারে কিন্তু যারা আপনার ওয়েবসাইটের ইন্টারেস্টেড ভিজিটর দ্বারা আপনার ওয়েবসাইটে ইমেইল দিয়ে সাবস্ক্রাইভ করে নিবে এবং আপনার তাদের কাছে পরবর্তী পোস্টের মেইল পাঠাতে পারবেন।

ইমেইল সাবস্ক্রিপশন এর বিভিন্ন ধরনের টুলস রয়েছে অনলাইন মার্কেটপ্লেসে আপনার যে কোন একটি অটোরেসপন্ডার সফটওয়্যার ব্যবহার করতে পারেন আপনার ওয়েব সাইটের ভিজিটরদের সাবস্ক্রিপশন নেওয়ার জন্য।
জনপ্রিয় কিছু অল্প অটোরেসপন্ডার সফটওয়্যার রয়েছে যেমন মেইলচিম্প গেট রেসপন্স মেলার লাইট আপনি এই সমস্ত ওয়েবসাইট গুলো আপনার সাবস্ক্রিপশন এর জন্য ব্যবহার করতে পারেন।

এ সফটওয়্যার গুলোর কিছু সুবিধা আপনারা ফ্রীতে ব্যবহার করতে পারবেন এবং কিছু লিমিটেশন এর পরে আপনাদেরকে সফটওয়্যার গুলো কিনে নিতে হবে আপনারা চাইলে এই সফটওয়্যার গুলোতেও ব্যবহার করতে পারেন এবং চাইলে কিনে নিও ব্যবহার করতে পারেন।

পুশ নোটিফিকেশন পাঠান।


আপনি ওয়েবসাইটে পুশ নোটিফিকেশন সফটওয়্যার ব্যবহার করতে পারেন বিভিন্ন ওয়েবসাইট আছে যারা এই সার্ভিস গুলো দিয়ে থাকে আপনার ওয়েবসাইটে আপনি পোস্ট নোটিফিকেশনের জন্য একটি নোটিফিকেশন পেতে পারেন যদি আপনার ভিজিটর সিটি এলাও করে দেয় তাহলে পরবর্তী পোস্টগুলো আপনার ওয়েবসাইটের নোটিফিকেশনের মাধ্যমে আপনার ভিজিটরদের কাছে আপনার পোস্টটি পৌঁছে দিতে পারবেন।

পুশ নোটিফিকেশন পাঠানোর জন্য আপনি বিভিন্ন ধরনের ওয়েবসাইট কে ব্যবহার করতে পারেন আপনার ওয়েবসাইটের জন্যে গুগোল এ সার্চ করলে আপনার প্রচুর পরিমাণে পুরুষ নোটিফিকেশন পেয়ে যাবেন সেখান থেকে আপনি যে কোন একটি পছন্দ করে আপনার ওয়েবসাইটের জন্য ব্যবহার করতে পারেন এতে করে প্রচুর পরিমাণে ভিজিটর আপনার ওয়েবসাইটে চলে আসবে।

সিমিলার কন্টাক্ট পাবলিশ করা।

আপনি চেষ্টা করবেন আপনার ওয়েবসাইটের সিমিলার কনটেন্ট পাবলিশ করার জন্য এতে করে আপনার ভিজিটর যখন একটি পোস্ট পড়তে আসবে তখন আশেপাশে অন্য পোস্টগুলো দেখলে সে একটা টিপ হয় আপনার অন্য পোস্টে চলে যেতে পারে এবং আপনার ওয়েবসাইট প্রচুর পরিমাণে ভিজিটর হতে পারে।

একই ক্যাটাগরির পোস্ট করলে আপনার ওয়েবসাইটে ভিজিটর গুলো প্রতিনিয়ত প্রবেশ করবে আপনার ওয়েবসাইটের ঠিকানা টি ধারা মনে রাখার চেষ্টা করবে যাদের এই সার্ভিসগুলো প্রয়োজন তারা আপনার ওয়েবসাইটে প্রতিনিয়ত ভিজিট করবে বিভিন্ন ধরনের টিপস এবং ট্রিকস পাওয়ার জন্য।

জনপ্রিয় পোস্টগুলো আপডেট করুন।

আপনার ওয়েবসাইটে যে জনপ্রিয় পোস্টগুলো আছে সেই পোস্টগুলো আপনি প্রতিনিয়ত আপডেট করবেন কারণ এই পোস্টগুলো মানুষ বেশি ভিজিট করে তাই আপনার ওয়েবসাইটে পোস্ট গুলো জনপ্রিয় হয়েছে।

এই পোস্টগুলি যদি আপনি আপডেট করেন এবং এই পোস্ট গুলোর ভিতরে আপনার অন্য পোস্ট গুলোর লিংক গুলো বসিয়ে দেন তাহলে এই পোস্টগুলো যারা দেখবে তারা যদি অন্য পোস্টের প্রতি ইন্টারেস্টেড হয় তাহলে আপনার অন্য আর একটি পোস্টে চলে যেতে পারে এতে করে একটি ভিজিটর আপনার ওয়েব সাইটে প্রচুর পরিমানে সময় ব্যয় করবে এটা আপনার ওয়েবসাইটের জন্যে খুবই ভালো।

এবং গুগোল চাই সবসময় আপনার পোস্ট গুলো আপডেট থাকুক এবং আপনি যখন পোস্ট গুলো আপডেট করবেন গুগল এটি পছন্দ করবে এবং আপনার ওয়েবসাইটের পোস্টগুলো তারা আরো ব্যাংকে নিয়ে আসার চেষ্টা করবে।

আশা করি এই সাতটি টিপস আপনাদের অনেকটাই উপকারে আসবে যারা এই টিপসগুলো ফলো করে আপনাদের ওয়েবসাইটে কাজ করতে পারবেন আমি আশা করি আপনারা আপনাদের ওয়েবসাইটগুলোতে ভূগোলের অঙ্ক করাতে পারবেন এবং প্রচুর পরিমাণে ভিজিটর পাবেন।

তাছাড়া আরো অন্যান্য বিষয় আছে যেমন এত ফ্রেন্ডলি পোস্ট করা বিভিন্ন ওয়েব সাইটের ব্যাকলিংক তৈরি করা এই সমস্ত কাজ গুলো আপনাকে করতে হবে এই সমস্ত বিষয়গুলো নিয়ে আমি আরো আগে একটি পোস্ট করেছি আপনারা চাইলে সেই পোষ্টটি দেখে আসতে পারেন।


পোস্টটি ভাল লাগলে অবশ্যই এই পোস্টটি আপনার সোসাল মিডিয়া প্রোফাইলে অথবা ফেসবুকে শেয়ার করবেন আর কোনো সাহায্যের প্রয়োজন হলে আমাদের ফেসবুক গ্রুপে জয়েন করতে পারেন আমরা সবাই মিলে আপনাকে সাহায্য করার চেষ্টা করব যে কোন বিষয়ে।

এবং আমাদের ইউটিউব চ্যানেলের সাবস্ক্রাইব করে রাখতে পারেন বিভিন্ন ধরনের কোর্স এর ভিডিও পাওয়ার জন্য এবং কোন প্রশ্ন থাকলে আমাদেরকে কমেন্টস করতে ভুলবেন না

পোস্টটি পড়ার জন্য সবাইকে ধন্যবাদ

Post a Comment

0 Comments