5 হাজার পর্নো সাইট বন্ধ করে দিল বিটিআরসি।

আমাদের বাংলাদেশে এই প্রথম কনটেন্ট ফিল্টারিং সেবাটি চালু হয়েছে এবং এই কনটেন্ট ফিল্টারিং সেবাটির মাধ্যমে বাংলাদেশের বর্তমান সময়ে 5000 পর্ন সাইট বন্ধ করে দিয়েছে বিটিআরসি।
5 হাজার পর্নো সাইট বন্ধ করে দিল বিটিআরসি।

এবং এর সাথে সাথে কিছু অবৈধ সাইট আছে যেগুলো জুয়া খেলার চার্ট এবং ব্যাট ধরার সাইট ঐ সমস্ত সাইট গুলো বন্ধ করে দিয়েছে বিটিআরসি।

এই ওয়েবসাইট গুলো বন্ধ করে আমার মতে বাংলাদেশে অনেকটাই উপকারী হয়েছে যারা ছোট বাচ্চারা মোবাইল ফোন ব্যবহার করত তারা অনায়াসেই যে কোন ওয়েব সাইটে প্রবেশ করে ফেলতে পারতো এই সেবাটি চালু হওয়ার পরে এবং 5000 ওয়েবসাইট বন্ধ করার পরে আমার মনে হয় অনেকটাই ভালো হয়েছে আমাদের দেশের যারা ছোট মোবাইল ফোন ব্যবহার করে তাদের জন্য।

এখন চাইলেই আর যে কেউ যে কোন ওয়েব সাইটে অবৈধ এক সাইডে পারমিশন ছাড়া প্রবেশ করতে পারবে না বাংলাদেশ থেকে।

আমাদের দেশে প্রায় শিশুর আই মোবাইল ফোন ব্যবহার করে এবং তারা অনেক অপকর্ম এবং অনেক নানান ধরনের পর্নো সাইট থেকে অনেক ধরনের ভিডিও দেখতে এবং ডাউনলোড করতো এখন আমরা মনে করি যে এই সেবাটি চালু হওয়ার পরে আমাদের দেশে অনেকটাই ভালো হয়েছে এবং যারা ছোটদের কাছে মোবাইল চেয়েছেন তারা আর এই সাইট গুলো ব্যবহার করতে পারবে না এবং তাদের মন মানসিকতা অশ্লীলতার দিকেও যাবে না।

এবং আমাদের দেশে অনেকেই জুয়ার লটারি ধরতেন বাংলাদেশ একটি জনপ্রিয় সাইট বেট 365 এই সাইটটির বিটিআরসি বন্ধ করে দিয়েছে কারণ এই সাইডে আমাদের দেশের অনেকেই প্রচুর টাকা লস দিয়েছেন আবার অনেকে ইনকাম করেছেন।

কিন্তু বেশিরভাগ মানুষের লসে পড়েছেন এর জন্য আমাদের দেশের অনেক ক্ষতি হয়েছে এবং আমাদের দেশের টাকা বিদেশে হারিয়ে গেছে এটা আমাদের দেশের অনেক ক্ষতি হয়েছে বিটিআরসির এই পদক্ষেপ নেওয়ার পরে আর এই রকমের জুয়া খেলতে পারবে না দেশের লোক এতে করে আমাদের দেশের টাকা আমাদের দেশে থাকবে।

এই সাইট গুলো বন্ধ করে আমাদের দেশের অনেক উপকার হবে আমাদের দেশের সংস্কৃতি এবং আমাদের দেশের ধর্ম এই সমস্ত সাইট এবং এই সমস্ত কার্যকলাপ অনুমোদন করে না তাই আমাদের দেশের সংস্কৃতি ঠিক রাখার জন্য এই সমস্ত সাইট বন্ধ করা উচিত ছিল এবং এটি করেছেন বিটিআরসি।

তাছাড়াও টিকটক এবং বিগো লাইভের মত যে সমস্ত অশ্লীল সফটওয়্যার গুলো আছে এই গুলো বন্ধ করার কার্যক্রম চলছে বিটিআরসির মধ্যে।

আমাদের দেশে অনেক তরুণ-তরুণীর বিগো লাইভ এবং টিক টক এর মধ্যে ভিডিও আপলোড করছে এবং সেক্স ভিডিও গুলো কোন সুষ্ঠু ভিডিও নয় এগুলো আমাদের দেশের কালচার এর সাথে মিলে না এরকম ধরনের ভিডিও টিক টক এ ভিডিও আপলোড করা হচ্ছে এই সফটওয়্যার গুলো বন্ধ করা প্রয়োজন এবং এই সফটওয়্যার গুলো বন্ধ করার জন্য কার্যক্রম চলছে।

এসব সফটওয়্যার গুলোর মধ্যে নৈতিবাচক কোন কিছুই নেই আমাদের দেশের অনেক ছেলেমেয়েরাই এসব সফটওয়্যার ব্যবহার করে থাকে এবং তাদের রুচিশীলতা অনেকটাই নিচে নেমে গেছে তাই এই সমস্ত সফটওয়্যার গুলো বন্ধ করার পদক্ষেপ নিয়েছে বিটিআরসি।

Post a Comment

0 Comments