মনিটাইজ পেতে হলে ইউটিউব এর জন্য কেমন ভিডিও বানাতে হবে?


মনিটাইজ পেতে হলে ইউটিউব এর জন্য কেমন ভিডিও বানাতে হবে।


আমাদের দেশে বর্তমান সময়ে প্রচুর পরিমাণে লোক ইউটিউবে ভিডিও আপলোড করার মাধ্যমে ইনকাম করতে চান।
কিন্তু তারা সবাই সফল হতে পারেন না।
কারণ তারা ইউটিউব সম্পর্কে খুব বেশি একটি ধারনার না নিয়ে ইউটিউবে কাজে নেমে পড়েন যার কারনে তারা খুব বেশি দূর আগাতে পারেন না কিছুদিন কাজ করার পরে তারা ব্যর্থ হয়ে ফিরে যান।
আপনি যদি ইউটিউব এ কাজ করতে চান এবং ইউটিউবে ভিডিও গুলো মনিটাইজ করতে চান তাহলে আপনার যে বিষয়গুলো লক্ষ রাখতে হবে।
প্রথমেই কপিরাইট কোন ভিডিও আপলোড করা যাবেনা সম্পূর্ণ ভিডিও আপনার নিজের হতে হবে।
অনেকেই আছেন যারা অন্যের ভিডিও নিজের চ্যানেলে কিছুটা অংশ কেটে কেটে জোড়া লাগিয়ে বড় ধরনের একটা ভিডিও বানিয়ে ইউটিউব এ আপলোড করে দেন।

যদি ইউটিউবে আসলেই কাজ করতে চান তাহলে এই কাজগুলো করা বন্ধ করে দিন।অন্য কারো ভিডিও থেকে কোন ধরনের কনটেন্ট একটু অথবা বেশি অংশ কেটে নেওয়া থেকে বিরত থাকুন।
এবং ইউটিউবের কপিরাইট রুলস সম্পর্কে বিস্তারিত জানুন দেন তারপরে ভালভাবে কাজ করা শুরু করুন।
আজেবাজে ভিডিও আপলোড করা।
ইউটিউব এ যারা নতুন তারা সব সময় এই কাজগুলো করে থাকেন যে কোন একটা ভিডিও ভালো হোক বা খারাপ হোক সেই ভিডিওটা ইউটিউবে আপলোড করে দিয়ে ভিডিও থাম্বনেইল একটা আকর্ষণীয় পিকচার দিয়ে আপলোড করে দেন যেন মানুষ সেখানে ক্লিক করে।
এরকম কোন ভিডিও আপলোড করা যাবে না যে ভিডিওতে মানুষ ক্লিক করার পর এই ভিডিওটি পুরোপুরি না দেখেই চলে আসে তাহলে আপনার চ্যানেল রেঙ্ক হওয়া তো দূরের কথা আপনার চ্যানেল আস্তে আস্তে  ইউটিউব এর সার্চ রেঙ্ক থেকে নিচে নেমে যাবে।
এবং আপনি কখনই এমন ভিডিও দিয়ে মনিটাইজ করতে পারবেন না আপনার ইউটিউব চ্যানেল টি।
ভিডিওর ভিতর এক উপরে আর এক
ভিডিওর ভিতর আপনি এক রকমের কনটেন্ট দিয়েছেন কিন্তু ভিডিও টাইটেল থামেলে আপনি অন্য রকম একটা আকর্ষণীয় বিষয় লিখে দিয়েছেন এরকম ভিডিও আপলোড করা যাবে না এবং এরকম টাইটেল এবং থাম্বেল দেওয়া যাবে না।
যদি আপনি এই কাজগুলো অলরেডি করে থাকেন তাহলে এখনি বন্ধ করে দেন এবং পূর্বের ভিডিও গুলো আপনি নতুন করে এডিট করে দিন।
ইউটিউব এ যদি আপনি কাজ করতে চান তাহলে আপনাকে এমন ভিডিও আপলোড করতে হবে যাতে মানুষের কাজে আসে।
মানুষ যেন আপনার ভিডিওটা দেখে। শুধুমাত্র আপনার ভিডিও তে ক্লিক করলে হবেনা আপনার ভিডিওতে ওয়াচ টাইম থাকতে হবে এমন ভিডিও যদি আপনি ইউটিউবে আপলোড করতে পারেন তাহলে আপনি ইউটিউব থেকে মনেটাইজ পাবেন।
তা না হলে আপনি ইউটিউব থেকে মনিটাইজ পাবেন না।
ইউটিউব বর্তমান সময়ে ভিউ এর চাইতে ওয়াচ-টাইম এর গুরুত্ব বেশী দিয়ে থাকে কারন মানুষ থাম্বনেইল নানা ধরনের আকর্ষণীয় ছবি ব্যবহার করে ভিডিও তে ক্লিক আনতে পারে কিন্তু ভিডিওটি যদি ভালো না হয় মানুষ এই ভিডিওটি দেখবে না যার কারণে ইউটিউব বর্তমান সময় ওয়াচ-টাইম এর উপরে প্রচুর পরিমাণে নজর দিচ্ছে।
এবং মনিটাইজ পেতে হলে আপনাকে অবশ্যই আপনার নিজের কন্টেন্ট আপলোড করতে হবে।
আরো কনটেন্ট চুরি করে আপলোড করলে আপনিই মনিটাইজেশন পাবেন না।
এবং আপনি যদি ভিডিও তৈরি করতে পছন্দ করেন এবং ভিডিও তৈরি করতে আপনার ভালো লাগে তাহলে আপনি ইউটিউবে এসে কাজ করতে পারেন।
আপনি অনলাইনে যে কাজটি করতে আসেন না কেন সেই কাজটি প্রতি আপনার একটা ইন্টারেস্টেড থাকতে হবে তাহলে আপনি ওই কাজটা করে সফল হতে পারবেন।
মনে করেন আপনার ভালো লাগে ফটো এডিটিং করতে আপনার চলে আসলেন ইউটিউব এ কাজ করতে তাহলে আপনি এখানে খুব বেশি দূর আগাতে পারবেন না আপনার যদি ফটো এডিটিং করতে ভালো লাগে তাহলে আপনি গ্রাফিক্স ডিজাইন করতে পারেন এবং আপনার যদি ভিডিও তৈরি করতে ভালো লাগে সে ক্ষেত্রে আপনি ইউটিউবে এসে কাজ করতে পারেন।
বর্তমানে ইউটিউবে প্রচুর পরিমাণে কন্টেন্ট ক্রিয়েটর রয়েছে তাই আপনাকে এখানে প্রচুর পরিমাণে কষ্ট করতে হবে এবং রেগুলার ভিডিও আপলোড করতে হবে।
আর অবশ্যই ইউটিউব এ কাজ করতে হলে আপনাকে সোশ্যাল মিডিয়াতে কিছুটা শক্তিশালী হতে হবে।
যেমন ফেসবুকে টুইটারে গুগল প্লাস এই সমস্ত সোশ্যাল মিডিয়াগুলোতে আপনার অ্যাকাউন্ট থাকতে হবে এবং সেই অ্যাকাউন্ট গুলোতে ইউটিউব এর ভিডিও গুলো শেয়ার করতে হবে যেন মানুষের সামনে আপনার ভিডিওগুলো পৌঁছায়।
আপনি যখন নতুন চ্যানেল করবেন ইউটিউব এর জন্য তখন আপনার কোন সাবস্ক্রাইবার থাকবে না তাই আপনাকে মানুষের কাছে এই ভিডিওগুলো পৌঁছানোর জন্য আপনাকে প্রচুর পরিমাণে ভিডিও শেয়ার করতে হবে।
আর অবশ্যই ফেসবুকে একটি গ্রুপ এবং একটি পেজ তৈরি করে নিতে হবে আপনার ভিডিও গুলো শেয়ার করার জন্য।
এবং ইউটিউব এর রুলস অনুযায়ী বর্তমান সময়ে এক বছরের মধ্যে আপনার ইউটিউব চ্যানেলে 1 হাজার সাবস্ক্রাইবার এবং 4000 মিনিট ওয়াচ টাইম থাকতে হবে তাহলে আপনার চ্যানেলটি মনিটাইজ এর জন্য এপ্লাই করতে পারবেন।
এপ্লাই করলে যে আপনার চ্যানেল মনিটাইজ হয়ে যাবে তা না এপ্লাই করার পরে ইউটিউব এর কমিউনিটি গাইডলাইন তারা আপনার ভিডিও গুলো ম্যানুয়ালি রিভিউ করবে। রিভিউ করার পর তাদের যদি মনে হয় আপনার ইউটিউব চ্যানেলটি মনিটাইজেশন পাওয়ার যোগ্য তাহলে আপনাকে মনেটাইজ দিয়ে দেবে।
আর যদি মনিটাইজেশন পাওয়ার যোগ্য না থাকে সেই প্রবলেম গুলো আপনাকে ইউটিউব জানিয়ে দেবে এবং পরবর্তীতে এপ্লাই করার জন্য আবার সময় দেওয়া হবে একমাস পরে আপনি আবার পুনরায় আবেদন করতে পারবেন যে সমস্যা গুলো ইউটিউব আপনাকে বলে দেবে আপনার সেই সমস্যার সমাধান করে পুনরায় একমাস পরে আবেদন করলে আপনার চ্যানেল টি যদি ঠিকঠাক ভাবে সমাধান করতে পারেন তাহলে আপনি মনিটাইজেশন পেয়ে যাবেন।
ইউটিউব এ যদি আপনি কাজ করতে চান এবং আপনার ক্যারিয়ার গড়তে চান তাহলে আপনাকে প্রচুর পরিমাণে সততার সাথে কাজ করতে হবে।
ইউটিউব এমন একটা প্ল্যাটফর্ম যেখানে আপনি একবার কাজ করা শুরু করে দিলে যদি আপনি মনিটাইজেশন পেয়ে যান এবং সফলভাবে যদি আপনি কাজ করতে পারেন তাহলে আপনি একটি ইউটিউব চ্যানেল দিয়ে সারা জীবন ইনকাম করতে পারবেন।
তাই আপনার যদি ইচ্ছা থাকে আপনি অনলাইন থেকে ইনকাম করবেন তার জন্য ইউটিউব টাকে যদি বেছে নিয়ে থাকেন তাহলে আপনি খুবই সহজ ভাবে এবং করে ভালোভাবে কাজ শুরু করুন ইউটিউব থেকে প্রচুর পরিমাণে টাকা অর্জন করা যায় যদি ভালোভাবে কাজ করতে পারেন তাহলে।
আর ইউটিউবে কাজ করার জন্য আপনাকে প্রচুর পরিমানে ধর্য্য থাকতে হবে এবং পরিশ্রম করতে হবে তাহলে আপনার ইউটিউব এর সফলতা অর্জন করতে পারবেন তা না হলে আপনাকে কিছুদিন কাজ করার পরে পিছনে ফিরে চলে আসতে হবে।
কোন ভুল হলে ক্ষমা সুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন,পোষ্টটি ভালো লাগলে শেয়ার করে দিবেন।
এবং কিছু বলার থাকলে কমেন্ট করতে পারেন ধন্যবাদ....

Post a Comment

0 Comments