কিভাবে ইউটিউব এর ভিউ বাড়াবেন। ভিউ বাড়ানের কিছু টিপস

আমরা অনেকেই ইউটিউবে এ কাজ করে থাকে কিন্তু আমাদের চেষ্টা অনুযায়ী ইউটিউবের ভিডিওতে ভিউ আনতে পারি না।
incress Youtube views


আর ইউটিউবের ভিডিওতে যার যত বেশি ভিউ তত বেশি ইনকাম।
আমাদের ভিডিওটি যদি মানুষ ভিউ করে তাহলে আমাদের ভিডিও উপরে যে এডভার্টাইসমেন্ট সু করে এখানে মানুষ ক্লিক করবে আর যদি আমার  ভিডিওটি বিউই না আসে তাহলে আমাদের এডভার্টাইসমেন্ট সো করবে কিভাবে অথবা আমাদের এডভার্টাইসমেন্টে ক্লিক কিভাবে করবে কে।
তাই আমরা সবাই চাই আমাদের ভিডিওতে ভিউ বাড়ানোর জন্য।
আমাদের দেশে অনেকেই ইউটিউব এ কাজ করেন ইনকাম করার জন্য এবং অনেকে অনেক পরিশ্রম করেন কিন্তু ভিউ আনতে পারেন না তাদের জন্যে আজকে আমার কিছু টিপস থাকবে যে টিপসগুলো ফলো করলে আশা করি খুব দ্রুত আপনার ভিডিওতে আপনি ভিউ নিয়ে আসতে পারবেন।
ইউটিউবে কিছু কিছু ভিডিও আছে যে ভিডিও গুলো কম্পিটিটর অনেক বেশি ঐ সমস্ত ভিডিও নিয়ে যদি আপনি কাজ করেন তাহলে ভিডিও ওপর ভিউ আসতে আপনার অনেকটা সময় লেগে যাবে।
সে ক্ষেত্রে আপনাকে অবশ্যই সোশ্যাল মিডিয়াতে একটু শক্তিশালী হতে হবে। আপনি বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া থেকে আপনার ইউটিউব এর ভিডিওর ভিউ বাড়াতে পারবেন।
আর যদি আপনি সোশ্যাল মিডিয়া  শক্তিশালী না হয়ে থাকেন তাহলে আপনাকে কিছু টেকনিক অবলম্বন করতে হবে যেগুলো ব্যবহার করার মাধ্যমে আপনি আপনার ইউটিউব এর ভিডিও তে প্রচুর পরিমাণে ভিউ নিয়ে আসতে পারবেন।

যে বিষয়গুলো আপনাকে ফলো করতে হবে

আপনার ভিডিওতে টাইটেল ডেস্ক্রিপশন থাম্বনেইল খুব ভালো ভাবে সাজাতে হবে।

ভিডিওটি খুব সুন্দর ভাবে এডিট করতে হবে যেন ভিডিওটা দেখতে ভালো লাগে এবং সাউন্ড কোয়ালিটি খুবই ভালো হতে হবে।

আপনার ভিডিওটি সোশ্যাল মিডিয়াতে প্রচুর পরিমাণে শেয়ার করতে হবে যেমন ফেসবুক বিভিন্ন গ্রুপে এবং আপনার নিজের জন্য একটি পেজ তৈরি করে নিতে হবে সেখানে আপনার ইউটিউব এর ভিডিও গুলো শেয়ার করতে হবে।

এবং আপনাকে সাবস্ক্রাইবার বৃদ্ধি করতে হবে যেখান থেকে আপনি প্রতিনিয়ত ভিউ পাবেন।

টাইটেল ব্যবহারের নিয়ম

আপনাকে ভিডিও আপলোড করার সময় ভালোভাবে টাইটেল লিখতে হবে যে কিওয়ার্ডগুলো রেঙ্ক আছে ঠিক সেই কিওয়ার্ডগুলো টাইটেল ব্যবহার করবেন যেগুলো লিখে মানুষ প্রতিনিয়ত সার্চ করে আপনি চাইলে সার্চ করে দেখতে পারেন কোন কি ওয়ার্ডগুলো দেখে মানুষ সার্চ করে ঐ সমস্ত কি ওয়ার্ডগুলো টাইটেলে রেখে দেবেন তাহলে আপনার ভিডিওটি খুব দ্রুত সার্চ রেন্কে চলে আসবে।

ডেস্ক্রিপশন ব্যবহারের নিয়ম

আপনাকে ডেসক্রিপশন খুব ভালোভাবে লিখতে হবে ডেসক্রিপশন হচ্ছে ভিডিওর খুব গুরুত্বপূর্ণ একটি জায়গা।
যেখানে আপনি আপনার ভিডিও সম্বন্ধে কিছু লিখে দেবেন ভিডিওটি কোন বিষয়ে তৈরি করছেন ভিডিওটি দেখলে মানুষ কি কি শিখতে পারে এবং কি কি পেতে পারে সেই সম্বন্ধে আপনি 10 থেকে 15 লাইন লেখা লিখে দিবেন।
আপনার ভিডিও রিলেটেড কিছু কিওয়ার্ড ব্যবহার করবেন  ইউটিউবে মানুষ এই সমস্ত কি ওয়ার্ড লিখে সার্চ করে সার্চ করলে যেন আপনার ভিডিওটি সার্চ রেন্কে চলে আসতে পারে এমন কিছু কি ওয়ার্ড দিয়ে দিবেন।

ট্যাগ ব্যবহারের নিয়ম

ট্যাগ দেওয়ার সময় আপনাকে একটা বিষয় লক্ষ্য রেখে ট্যাগ দিতে হবে।
আপনি টাইটেলে যে সমস্ত কিওয়ার্ডগুলো ব্যবহার করবেন ঐ সমস্ত কীওয়ার্ড রিলেটেড যে যে ওয়ার্ডগুলো আছে সেখান থেকে আপনি তিন থেকে পাঁচটা কিওয়ার্ড আপনি ট্যাগ এর মধ্যে দিয়ে দেবেন।
এতে সার্চ করলে আপনার ভিডিওটা সামনে চলে আসতে পারে।
অনেকেই অনেক বেশি পরিমাণ ট্যাগ দিয়ে থাকেন ছোট ছোট করে 15 থেকে 20 টা  এত ট্যাগ দেওয়ার কোনো প্রয়োজন নেই।
আপনি বড় ধরনের কিছু ট্যাগ দিয়ে দিবেন যেখান থেকে 3 থেকে 5 টা ট্যাগ দিয়ে দেন তাহলেই যথেষ্ট।

ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করা।

আপনি চেষ্টা করবেন আপনার ভিডিওটি ইউটিউবে আপলোড করার সাথে সাথে বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করে দেওয়ার জন্য।
আপনার ভিডিওতে যেন আপলোড করার সাথে সাথে কিছু ভিউ চলে আসে।
আপনার চ্যানেলটি যদি নতুন হয়ে থাকে তাহলে আপনার চ্যানেলে যত ভালো ভিডিও হোক না কেন চ্যানেলে আপলোড করার পরে কেউ জানবে না যে আপনার চ্যানেলে একটি ভালো ভিডিও আছে তার জন্য আপনাকে অবশ্যই সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করতে হবে।
আর যত দ্রুত পারবেন ভিডিও আপলোড করার পর সাথে সাথে আপনি বিভিন্ন গ্রুপে এবং আপনার ফেসবুক পেজে টুইটারে  এই সমস্ত সোশ্যাল মিডিয়াগুলোতে আপনি শেয়ার করে দিবেন যেন আপলোড করার সাথে সাথে আপনার ভিডিওতে ভিউ চলে আসে।

আপনি চাইলে আপনার ভিডিওগুলো আপনি ইমেইলের মাধ্যমে অনেক মানুষের কাছে পৌঁছে দিতে পারেন অনলাইনে অনেক লোক আছে যারা ইমেইল গুলো সেল করে থাকে।
এবং ইমেইল কালেক্ট করে থাকে এবং চাইলে আপনিও ইমেইল কালেক্ট করতে পারেন এবং সেই ইমেইল গুলোতে আপনি এই ভিডিওগুলো পৌঁছে দিতে পারেন মানুষের কাছে।
 আপনাকে কিছু টার্গেটেড লোকের ইমেইল খুজে নিয়ার পরে আপনি ইমেইল মার্কেটিং টুলস এর মাধ্যমে আপনার ভিডিওগুলো আপনি তাদের সামনে পৌঁছে দিতে পারেন এতে করে আপনার ভিডিও তে প্রচুর পরিমাণে ভিউ চলে আসবে এবং আপনার সাবস্ক্রাইবার বাড়বে।

আপনার ভিডিওগুলো আপনি আপনার ওয়েবসাইটে শেয়ার করতে পারেন আপনার ইউটিউব চ্যানেলের জন্য আপনি একটি ওয়েব সাইট তৈরি করে নিতে পারেন এবং সেই ওয়েব সাইটে আপনি আপনার ইউটিউব এর ভিডিও গুলো শেয়ার করতে পারেন যেখান থেকে আপনি প্রচুর পরিমাণে ভিউ পাবেন এবং সাবস্ক্রাইবার ও পেয়ে যাবেন।

ভিডিও এডিটিং

আপনার ভিডিওটি এডিটিং এর মাধ্যমে আকর্ষণীয় করতে হবে যেন আপনার ভিডিওতে কোন একজন ক্লিক করার পর 1 থেকে 2 মিনিট যেন আপনার ভিডিওটা দেখে এবং সেই সময়ের মধ্যে আপনাকে ভিডিও মূল বিষয়টা তাকে বুঝিয়ে দিতে হবে তাহলে সে আপনার পুরোপুরি ভিডিওটি দেখবে এবং আপনার এই ভিডিওটি খুব সুন্দর ভাবে এডিট করতে হবে।

ভিডিও এডিট করার সময় আপনি ভিডিওর ব্যাকগ্রাউন্ড এ কিছু মিউজিক ব্যবহার করতে পারবেন যে মিউজিকগুলো ব্যবহার করার মাধ্যমে আপনি ভিডিওর একটা আকর্ষণ তৈরি করতে পারেন যেন আপনার ভিডিওটি দেখতে ভালো লাগে এবং আপনি এই বিষয়ে খেয়াল রাখবেন যেন আপনার ভিডিওর ব্যাকগ্রাউন্ড মিউজিক টা আপনার কথা বলার চাইতে বেশি জোরে না হয়ে যায় তাহলে আবার ভিউয়ার বিরক্ত বোধ ও হতে পারে।

আপনার ভিডিওটি ইউটিউবে আপলোড করার পরে আপনি ইউটিউব এর এডিটর দিয়ে আপনার ভিডিওর উপর কার্ড এড করে দিতে পারেন এবং ভিডিওটি শেষ হবার সময় যে এন্ড স্ক্রীন আছে সেখানে আপনি অন্যান্য ভিডিও গুলো এড করে দিতে পারেন।
যার মাধ্যমে আপনি প্রচুর পরিমাণে ভিউ পেতে পারেন আপনার একটি ভিডিও শেষ হয়ে যাওয়ার পর আপনার ভিউয়ার অন্য একটি ভিডিও তে ক্লিক করে আপনার আরো অনেক কিছু দেখতে পারে।

সাবস্কাইবার বৃদ্ধি করা

সাবস্কাইবার বৃদ্ধি করার জন্য আপনি যখন ভিডিও তৈরী করবেন আপনার ভিডিওর মাঝখানে আপনি ভিডিওতে সাবস্ক্রাইবার বাটন রেখে দিবেন।
অথবা আপনি কিছুক্ষণ পরে ভিডিওর মাজে একবার অথবা দুইবার আপনার  ভিউয়ারদেরকে আপনার চ্যানেল টি সাবস্ক্রাইব করার কথা বলতে পারেন।
 আবার অতিরিক্ত বেশি বার সাবস্ক্রাইব করার কথা বলবেন না এতে করে আপনার ভিউয়ার বিরক্ত হতে পারে ভিডিওর প্রথমে একবার এবং ভিডিওর শেষে একবার বলতে পারেন আপনার চ্যানেলটা সাবস্ক্রাইব করার জন্য।

ভিডিওতে লাইক এবং ডিজলাইক থাকাটা অত্যন্ত জরুরী যদি আপনার ভিডউতে লাইক এবং ডিজলাইক না থাকে তাহলে ইউটিউব বুঝতে পারবে না যে আপনার ভিডিওটি ভাল কিনা খারাপ সে ক্ষেত্রে অবশ্যই আপনি ভিডিওর মাঝে মাঝে বলে দেবেন আপনার ভিউয়ারদের কে যেন আপনার ভিডিওটি তাঁরা লাইক করে দেয়
 এবং আপনার ভিডিওতে যদি প্রচুর পরিমাণে লাইকে আসে তবে কিছু ডিজলাইক ও আসবে সেটা কোনো বিষয় না আপনার ভিডিওতে ডিজলাইক থাকতে পারে লাইকো থাকতে পারে কোন সমস্যা নেই তবে ডিজলাইক এর সংখ্যা যেন বেশি না হয় সেদিকে লক্ষ্য রাখতে হবে।

ভিডিও রেংক করার জন্য কমেন্ট একটা গুরুত্বপূর্ণ অপশন আপনার ভিডিওতে যদি কমেন্ট না থাকে তাহলে ইউটিউব বুঝতে পারবে না যে আপনার সাথে ভিউয়ারদের রিলেশন আছে কিনা সেজন্য আপনি যখন ভিডিও তৈরি করবেন আপনি কিছু প্রশ্ন অথবা কোন বিষয় খোঁজার মতো কিছু রেখে দেন তাহলে মানুষ অবশ্যই আপনার ভিডিওতে কমেন্ট করবে আর আপনার ভিডিওতে যত বেশি কমেন্ট করবে আপনার ভিডিওটি ততো বেশি রেংক হতে থাকবে।

ভিডিও আপলোড করার সময় এই সমস্ত কাজ গুলো করুন দেখবেন আপনার ইউটিউব ভিডিওতে প্রচুর পরিমাণে ভিউ চলে আসবে আর ইউটিউব এ কাজ করার জন্য আপনাকে ইউটিউব পলিসি সেগুলো এবং ইউটিউব কমিউনিটি গাইডলাইন এর রুলস গুলো আছে সে বিষয়গুলো আপনাকে ভালো ভাবে জানতে হবে এবং সে রুলস গুলো মেনে ইউটিউব এ কাজ করুন আপনি অবশ্যই সফল হতে পারবেন।

কোন ভুল হলে ক্ষমা সুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন,পোষ্টটি ভালো লাগলে শেয়ার করে দিবেন।
এবং কিছু বলার থাকলে কমেন্ট করতে পারেন ধন্যবাদ....

Post a Comment

0 Comments